সম্পাদকীয় কলাম – ডিসেম্বর, ২০১৪

কুতুববাগ দরবার শরীফের মহাপবিত্র বার্ষিক ওরছ ও বিশ্বজাকের ইজতেমা আসন্ন প্রায়। আগামী ২২ ও ২৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় এই বিশাল দ্বীনি জলসার প্রস্তুতিতে ৩৪ ইন্দিরা রোড ফার্মগেটে দরবার শরীফের সদর দপ্তর এখন মুখর। সারাদেশের জাকের ভাই-বোনেরাও এই মহাপবিত্র আয়োজন সফল করতে নিজ নিজ এলাকায় কাজ করে চলেছেন। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার যে জনসমাগম হবে আরও অনেক বেশি, সে সত্য ইতিমধ্যেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। সে জন্য প্রস্তুতিও চাই সর্বাত্মক। লাখ লাখ মানুষের সুশৃঙ্খলভাবে তবারক বিতরণ, তাদের যাতায়াত, থাকার ব্যবস্থা এবং ইজতেমার মাঠ সাজানো প্যান্ডেল, তোরণ এবং ব্যাপক প্রচার কর্মসূচি অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে। এর সঙ্গে কুতুববাগ দরবারের আশেক-জাকেরদের আন্তরিকতা, জানে-মালে সেবায় গভীরভাবে জড়িত। আমাদের মহান মুর্শিদ ক্বেবলা খাজাবাবা কুতুববাগী ক্বেবলাজান ইতিমধ্যেই সারা দেশ এবং রাজধানীজুড়ে একের পর এক মাহফিলের মধ্য দিয়ে দাওয়াত কার্যক্রমে বিরামহীন নিজেকে নিবেদিত রেখেছেন। শুধু বাংলাদেশ নয়, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকেও আশেক-জাকের তথা আল্লাহর জিকিরকারীগণ আসবেন। সেজন্যও চাই নিবিড় প্রস্তুতি। সবচেয়ে বড় প্রয়োজন অর্থবল, জনবল আর শৃঙ্খলা। আল্লাহর অশেষ মেহেরবাণীতে জাকের ভাই-বোনেরা সাধ্যমতো সেবা আর শ্রম দিয়ে, অর্থ দিয়ে, গুরু, ছাগল, উট, ভেড়া, মহিষ, চাল, ডাল, আলু, তেল ও মশলাসহ লাখ লাখ মানুষের তবারক তৈরির উপকরণ সরবরাহে কখনো কার্পণ্য করেননি, এবারও করবেন না। অলি আল্লাহদের আত্মার এই মহামিলনে যোগ দিয়ে সবাই নিজের জীবনকে সার্থক করে তুলবেন এই আমাদের প্রত্যাশা।

(Visited 35 times, 1 visits today)
Share

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *